শুরু হতে চলেছে তেলেঙ্গানা বেঙ্গলি ফিল্ম ফেস্টিভাল

শুরু হতে চলেছে তেলেঙ্গানা বেঙ্গলি ফিল্ম ফেস্টিভাল। তেলেঙ্গানার পর্যটন ও সংস্কৃতি দপ্তরের সহযোগিতায় ও হায়দরাবাদ বেঙ্গলি সমিতির উদ্যোগে এই অনুষ্ঠান হতে চলেছে। প্রসাদ ফিল্ম থিয়েটারে ৬ ডিসেম্বর থেকে এই উৎসব শুরু হবে। ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে উৎসব। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন বনমন্ত্রী ব্রাত্য বসু ও উৎসবের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় । এছাড়াও থাকবেন রাখি গুলজার, অপর্ণা সেন, অরিন্দম ভট্টাচার্য, তুহিনা দাস, আবির চট্টোপাধ্যায় সহ আরও অনেকে । উদ্বোধনী ছবি হিসেবে দেখানো হবে ‘ঘরে বাইরে আজ’ । এছাড়াও তিনদিন ব্যাপী এই চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানো হবে ‘নির্বান’, ‘আমি জয় চ্যাটার্জি’, ‘সামসারা’, ‘বহমান’, ‘পূর্ব পশ্চিম দক্ষিণ উত্তর আসবেই’, ‘ কলকাতায় কোহিনূর’, ‘সহবাসে’, ‘মিতিন মাসি’, ‘রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত’ ও ‘হৃদমাঝারে’-র মতো ছবিগুলি । এই চলচ্চিত্র উৎসব সম্পর্কে ভাষা ও সংস্কৃতি দপ্তরের ডিরেক্টর হরিকৃষ্ণ মামিদি বলেন, “তেলাঙ্গানার একটা বড় অংশ জুড়ে রয়েছেন হায়দরাবাদের বাঙালিরা । রাজ্যে বসবাসকারি সব সংস্কৃতির মানুষকে সম্মান জানায় আমাদের সরকার । আর সেই কারণেই শিল্পের মাধ্যমে প্রতিটি সংস্কৃতির মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করতে উদ্যোগী এই সরকার । সেই উদ্যোগের মধ্যে তেলেঙ্গানা বেঙ্গলি ফিল্ম ফেস্টিভাল অন্যতম ।” এ প্রসঙ্গে হায়দরাবাদ বাঙালি সমিতির চেয়ারম্যান রঞ্জন কুমার রায় চৌধুরি বলেন, “সেকেন্দেরাবাদ ও হায়দরাবাদে মোট আট লাখ বাঙালি বসবাস করেন । তেলেঙ্গানা বেঙ্গলি ফিল্ম ফেস্টিভাল, আয়না ২০১৯ আবারও হায়দরাবাদে বসবাসকারি বাঙালিদের সঙ্গে তাঁদের সংস্কৃতির মেলবন্ধন ঘটাবে ।” এই চলচ্চিত্র উৎসবের ডিরেক্টর জয় কুমার দত্ত বলেন, “এ বছর তৃতীয় বর্ষে পা দিয়েছে চলচ্চিত্র উৎসবটি । এবছর এতে যোগ দেবেন বলিউড ও টলিউডের একাধিক ব্যক্তিত্ব ।” এবছর জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মিলিয়ে মোট ২৩টি ছবি দেখানো হবে উৎসবে । দেখানো হবে শর্ট ফিল্মও । এবছর মোট ১১টি বাংলা ফিচার ফিল্ম, ৮ টি শর্ট ফিল্ম ও ৩টি আন্তর্জাতিক সিনেমা দেখানো হবে । চলচ্চিত্র উৎসবের পাশাপাশি অভিনয়ের উপর একটি ওয়ার্কশপের আয়োজন করা হয়েছে । এছাড়াও ফোটো এগজিবিশন ও রান্না প্রতিযোগিতার আয়োজনও করেছেন উদ্যোগক্তারা ।